এমপি কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়ে লাখ টাকার প্রাইজমানি ঘরে তুললো কালীগঞ্জ একাদশ

এমপি কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়ে লাখ টাকার প্রাইজমানি ঘরে তুললো কালীগঞ্জ একাদশ

আরিফ মোল্ল্যা,কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) ॥
ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের সরকারী ভূষন হাইস্কুল মাঠে বুধবার অনুষ্ঠিত এমপি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় দেশের খ্যাতিমান তারকা ফুটবলার সমৃদ্ধ চুয়াডাঙ্গা জেলা ফুটবল একাদশকে ৪-০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কালীগঞ্জ ফুটবল একাদশ।

সারাদিনের টিপটিপ বৃষ্টির মধ্যদিয়েও ভেজা ভারী মাঠের ফুটবল লড়াই দেখতে কয়েক হাজার দর্শক ও ফুটবল প্রেমিরা ঐতিহ্যবাহী এ মাঠে উপস্থিত হন। মাঠভরা দর্শকদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় ভরা মাঠে স্থানীয় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার মাঠের মাঝখানে গিয়ে উভয় দলের খেলোয়াড় ও কলাকুশলীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে অভিজ্ঞ রেফারি রবিউল ইসলাম বাঁশি বাজিয়ে দিয়ে খেলা শুরু করেন।

প্রথমে উভয় দলের খেলোয়াড়দের পাল্টাপাল্টি আক্রমনের মধ্যদিয়ে দারুন উপভোগ্য হয়ে উঠে এ ম্যাচটি। কিন্ত প্রথমার্ধের ২০ মিনিটে বিদেশী খেলোয়াড় সমৃদ্ধ কালীগঞ্জ ফুটবল একাদশের ৪ নং জার্সিধারী নাইজেরিয়ান আব্রাহাম গোল করে দলকে ১-০ তে এগিয়ে দেন। এরপর মরিয়া হয়ে ওঠে চুয়াডাঙ্গা একাদশের খেলোয়াড়েরা। গোল হজমের ঠিক ৪ মিনিট পরেই খেলার ২৪ মিনিটে চুয়াডাঙ্গা একাদশের নাইজেরিয়ান কেসি ফাঁকায় বল পেয়েও গোলে লক্ষভ্রষ্ট সট করে সমর্থকদের হতাশায় ডুবান।

এরপর খেলার ৩২ মিনিটে কালীগঞ্জ একাদশের ৩ নং জার্সিধারী পরিশ্রমী আলমগীরকে গোলমুখে ফাউল করে ফাঁদে পড়ে চুয়াডাঙ্গা একাদশ। এ যাত্রা অভিজ্ঞ গোলরক্ষক ওয়াসিমের চেষ্টায় কোন রকমে রক্ষা পেলেও খেলার ৩৯ মিনিটে কালীগঞ্জ একাদশের সাঁড়াশি আক্রমন গোল মুখে প্রাচীর গড়ে তোলে চুয়াডাঙ্গা একাদশের খেলোয়াড়েরা।

 

এ সময় নাইজেরিয়ান সামসির জোরালো সটের বল এসে লাগে চুয়াডাঙ্গা একাদশের সেই জংশনের হাতে। পেনাল্টি পেয়ে ২য় সুযোগে কালীগঞ্জ একাদশের অধিনায়ক কায়েস সট করে দলকে ২-০ তে এগিয়ে দেন। এরপর চুয়াডাঙ্গা একাদশের খেলোয়াড়েরা পরপর ৩ টি গোলের সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি। এরপর রেফরি বিরতির বাঁশি বাজিয়ে দেন। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হলে চুয়াডাঙ্গা একাদশের খেলোয়াড়েরা মাঝমাঠ থেকে বল উঠিয়ে আক্রমন ভাগে দিলেও বারবার লক্ষ্যভ্রষ্ট সট দিয়ে মন ভেঙে দেন দলীয় সমর্থকদের।

কিন্ত কালীগঞ্জ একাদশের ক্ষিপ্র গতির আলমগীর, রাব্বি আর কায়েসের ত্রিমুখী আক্রমনে গোলমুখে বল পায় সতীর্থ নাইজেরিয়ান কাবির। খেলার ৫৪ মিনিটে তিনি প্রতিপক্ষ গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে বল জালে জড়িয়ে দিয়ে দলকে ৩-০ তে এগিয়ে দেন। এরপর খেলার বাকি সময়ে আর শক্ত হয়ে দাঁড়াতে পারেনি চুয়াডাঙ্গা ফুটবল একাদশ। এমন অবস্থায় খেলার অতিরিক্ত সময়ের মাত্র ২০ সেকেন্ড আগে কালীগঞ্জ একাদশের ক্ষুদে ফুটবলার জিম কফিনে শেষ পেরেক হিসেবে বল জালে জড়িয়ে দিয়ে দলকে ৪-০ তে এগিয়ে দেন। পরে বলে সট দিতেই রেফরি শেষ বাঁশি বাজিয়ে দিয়ে খেলা শেষ করেন।

খেলাটি পরিচালনায় সহকারী রেফারির দায়িত্ব পালন করেন এনামুল, মারুফ হোসেন এবং আব্দুর রাজ্জাক।
ধারা বর্ণনায় ছিলেন, খোরশেদ আলম, কামাল হোসেন ও অভিজ্ঞ রবিউল ইসলাম।

খেলা শেষে স্থানীয় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ ট্রফিসহ চ্যাম্পিয়ন দলকে লাখ টাকার এবং রানার্সআপ দলকে ৫০ হাজার টাকার প্রাইজমানিসহ পুরষ্কার তুলে দেন।

এ সময় কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সূবর্ণা রানী সাহা, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইউনুচ আলী, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী, কৃষি কর্মকর্তা জাহিদুল করিম, ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ,ক্রিড়া সংগঠক অজিৎ ভট্রাচার্য্য অজু দা, লুুৎফর রহমান লাড্ডুসহ সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কালীগঞ্জ একাদশের পরিশ্রমী খেলোয়াড় আলমগীর ম্যাচ সেরার পুরষ্কার পান।